রবিবার, ২৪ মার্চ ২০১৯, ০৪:৪৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
তৃতীয় ধাপে ১১৭ উপজেলায় ভোট শুরু চন্দনাইশে ভোটকেন্দ্রে গুলি, পুলিশ সদস্য গুলিবিদ্ধ শিক্ষামন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি পেলে ক্লাসে ফিরবেন শিক্ষকরা শাবির ছাত্র হলে আগুন, প্রশাসনের উদাসীনতার অভিযোগ জেলা মহিলা আ.লীগ সভানেত্রী রুবি ফাতেমা অসুস্থ, ঢাকায় প্রেরণ আগুন ছোট আতঙ্ক বড় কাদের সম্পূর্ণ সুস্থ, কমানো হচ্ছে ঘুমের ওষুধ দেশের সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন ভোটের মাধ্যমে চেয়ারম্যান হলেন যারা উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে মানুষের ক্ষতি যেন না হয় : প্রধানমন্ত্রী বিচারপতির স্ত্রীর কাছে ঘুষ দাবি, পুলিশ কর্মকর্তার জেল বিরামপুরে একই রাতে ৭ স্থানে দুর্বৃত্তদের আগুন যে উপকার পাওয়া যায় সপ্তাহে ৬ মিনিট লাফালে দোকানের তালা ভেঙ্গে  শিবগঞ্জে ৪ লক্ষাধিক টাকার মালামাল চুরি দুই হাজার গাড়ি বহনকারী জাহাজ মহাসাগরে ডুবে গেছে ডিজিটাল কাম লইলিছইন ভাইসাব: আশফাককে ডালিম




তিন মাস বেতন পাননি কলেজের ৫২ শিক্ষক-কর্মচারী

তিন মাস বেতন পাননি কলেজের ৫২ শিক্ষক-কর্মচারী

এডহক কমিটি সংক্রান্ত জটিলতার কারণে তিন মাস যাবৎ বেতনভাতা পাচ্ছেন না রংপুর নগরীর রাধাকৃষ্ণপুর অনার্স কলেজের ৫২ শিক্ষক-কর্মচারী। আর এজন্য কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষকে দায়ী করেছেন তারা।


সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, তিন মাস আগে জেলা প্রশাসককে সভাপতি করে ওই কলেজে ৫ সদস্য বিশিষ্ট এডহক কমিটির অনুমোদন দিয়েছে শিক্ষা বিভাগ। তবে কলেজের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বের কারণে ৫ সদস্যের কমিটির চারজনই এখনও নির্ধারিত হয়নি। আর এডহক কমিটি পূর্ণাঙ্গ না হওয়ায় বেতন পাচ্ছেন না শিক্ষক-কর্মচারীরা। এতে মানবেতর জীবনযাপন করছেন তারা।


কলেজ সূত্রে জানা যায়, প্রায় সাড়ে তিন বছর আগে ওই কলেজের অধ্যক্ষ মশিয়ার রহমানকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। এরপর থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে কলেজ পরিচালনা করে আসছেন দেলওয়ার হোসেন। আর এডহক কমিটি হওয়ার পূর্ব পর্যন্ত ওই কলেজের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন স্থানীয় আফজাল হোসেন নামে এক ব্যক্তি।


জানা যায়, অনুমোদিত এডহক কমিটিতে জেলা প্রশাসক সভাপতি ও কলেজের অধ্যক্ষ সচিব (পদাধিকার বলে) এবং একজন দাতা সদস্য, একজন বিদ্যোৎসাহী ও একজন শিক্ষক প্রতিনিধি থাকার কথা।


কলেজের কয়েকজন শিক্ষক জানান, ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ দেলওয়ার হোসেন কমিটি গঠনে আন্তরিকতা দেখাচ্ছেন না।


আর জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, গত সপ্তাহে কমিটির বিষয়ে কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষকে মৌখিকভাবে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ডাকা হলেও তিনি আসেননি।


ওই কলেজের এক শিক্ষক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, এডহক কমিটির সভাপতি নিয়ে বরখাস্তকৃত অধ্যক্ষ মশিয়ার রহমান ও ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ দেলওয়ার হোসেন একমত হলেও কমিটির সচিব কে হবেন তা নিয়ে দ্বন্দ্ব রয়েছে।


তিনি জানান, মশিয়ার রহমান দীর্ঘ তিনবছর ধরে সাময়িক বরখাস্ত অবস্থায় রয়েছেন। তিনি এ এডহক কমিটির সুযোগে ছিলেন। তিনি তার বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার ও কমিটির সচিব হওয়ার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করছেন।

এদিকে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ দেলওয়াার হোসেন তার পদ ছাড়তে চাইছেন না। তারা দুজনই রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় প্রভাব বিস্তার করার চেষ্টা করছেন।


এ বিষয়ে জানতে চাইলে কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) দেলওয়ার হোসেন বলেন, আমরা কমিটি পূর্ণাঙ্গ করার চেষ্টা করছি। কিন্তু মামলা সংক্রান্ত কিছু জটিলতার কারণে বিলম্ব হচ্ছে। তবে খুব দ্রুতই কমিটির বিষয়টি চূড়ান্ত হবে।


রংপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) রুহুল আমীন মিঞা বলেন, গত সপ্তাহে কমিটির বিষয়ে আলোচনার জন্য কলেজ কর্তৃপক্ষকে মৌখিকভাবে ডাকা হয়েছিল। কিন্তু তারা আসেননি। কলেজে দুটি পক্ষ আছে। আগামী সপ্তাহে দাফতরিকভাবে তাদেরকে ডাকা হবে। উভয় পক্ষের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি সমাধান করা হবে।

image_print

সংবাদ শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।




ক্যালেন্ডার

মার্চ 2019
সোম বুধ বৃহ. শু. শনি রবি
« ফেব্রু.    
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031



© All rights reserved © 2017 Uttarancholsylhet.com
 
Design & Developed BY TC Computer