আসন্ন নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে গোয়াইনঘাটে প্রার্থীরা

সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে একাধিক প্রার্থী সক্রিয়ভাবে মাঠে রয়েছেন

উপজেলা সদর থেকে শুরু করে গোয়াইনঘাটের নয়টি ইউনিয়নের সর্বত্রই প্রচারণা, গণসংযোগ এবং মতবিনিময় করে সময় পার করছেন তারা।

উপজেলা
পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে ইতিপূর্বে জেলা রিটার্নিং অফিসার কার্যালয় থেকে
কাগজপত্রাদিসহ জরুরী বিষয়াদি ইতোমধ্যে সেরে রেখেছেন তারা।

এদিকে
সীমান্ত জনপদ সিলেটের গোয়াইনঘাটে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রচার প্রচারণা
এবং গণসংযোগে ব্যস্ত ভাইস চেয়ারম্যান পদে পদপ্রার্থীরা বিভিন্ন স্থানে এবং সামাজিক
কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করে আসন্ন নির্বাচনে তারা ভাইস চেয়ারম্যান পদে জনগণ এবং
ভোটারের মতামত আদায়ে চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

তবে গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চা-হোস্টের গুলোতে ভোটারের আলোচনায় সবার শীর্ষে সালেহ আহমেদ এর নাম ।

সিলেটের
গোয়াইনঘাটে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে এখন পর্যন্ত যাদের নাম শুনা যাচ্ছে তারা
হলেন আওয়ামী লীগ নেতা ও ১নং রুস্তমপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মুসলিম উদ্দিন
ভূঁইয়া, বিএনপির উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক জয়নাল আবেদীন, উপজেলা ছাত্রলীগের
সিনিয়র সহ-সভাপতি গোলাম রব্বানী সুমন, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম নেতা মাওলানা গোলাম
কিবরিয়া কয়েছ, সিলেট এম সি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা দেলোয়ার হোসেন, গোয়াইনঘাট উপজেলা
যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আহমেদ মোস্তাকিন, ছাত্রদল নেতা সালেহ আহমদসহ একাধিক নেতা।

প্রচার
প্রচারণা এবং গণসংযোগে ব্যতিব্যস্ত এসব নেতাদের মধ্যেই কেউ না কেউ উপজেলা পরিষদের
ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবেন এমনটাই ধারণা জনগণ, ভোটার এবং সমর্থকদের।


ব্যাপারে কথা হলে গোয়াইনঘাটের রুস্তমপুর ইউনিয়নের জাহাঙ্গীর আলম জানান, ভাইস
চেয়ারম্যান পদে একাধিক প্রার্থী গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন, । তবে  আমরা তৃণমূল
থেকে শুরু করে সর্বস্তরের নেতা-কর্মীদের সাথে আলাপ আলোচনা করে নির্বাচনে কার্যক্রম
চালিয়ে যাচ্ছি।

রুস্তমপুর
ইউনিয়ন ছাত্রদলের নেতারা জানান, আসন্ন নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে গোয়াইনঘাটে
আওয়ামী লীগ বিএনপির একাধিক প্রার্থী মাঠে চষে বেড়াচ্ছেন। তবে আমার পছন্দসই প্রার্থী
হিসাবে সালেহ আহমেদকে গোয়াইনঘাটের জনগণ এবং ভোটাররা ভাইস চেয়ারম্যান হিসাবে
নির্বাচিত করবে বলে বিশ্বাস করি।

আরেক
ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম নেতা মাওলানা গোলাম কিবরিয়া কয়েছ
বলেছেন, গোয়াইঘাটের উন্নয়নের অংশীদার হতে ইচ্ছুক আমি। তাই জনগণ যদি আমাকে ভোট দিয়ে
নির্বাচিত করে তাহলে গোয়াইনগাটবাসীর ন্যায্য অধিকার আদায়ে আমার অবস্থান অব্যাহত
থাকবে।